কম্বোডিয়ার সিহানুকভিল রাজ‌্যের একটি দ্বীপ। এই দ্বীপটিতে খুব বেশি মানুষের ভীড় নেই। দ্বীপটির কিছু অংশ একেবারেই নির্জন। যারা নির্জনে প্রিয় মানুষের সঙ্গে নিরীবিলি সময় কাটাতে চান তাদের জন্য তো আদর্শ জায়গা। সমুদ্রের গাঢ় নীল জল, পাড়ে ধবধবে সাদা বালি, স্বচ্ছ পানি, পাহাড়, জঙ্গল, সব মিলিয়ে নিজেকে হারানোর মতো একটি জায়গা!

পাশেই এম পাই বে, কোহ রং আইল্যান্ড। বোট বা স্পিড ফেরিতে করে সেখানে যেতে পারবেন। ওয়ান ওয়ে ৫ ডলার ভাড়া। এম পাই বে বা কোহ রং এগুলো একেকটা প্যারাডাউজ অন আর্থ। এখানে বিভিন্ন ওয়াটার অ্যাক্টিভিটি করতে পারবেন। স্নোরকেলিং, বোটিং, সার্ফিং, ফিশিংসহ নানা কিছুর ব্যবস্থা আছে।

যাওয়া আসা ও খরচ: ঢাকা থেকে বিমানে কম্বোডিয়ার রাজধানী পেনম পেন। রিটার্ন টিকেট ৩০-৩৫ হাজার টাকা। সেখান থেকে ট‌্যুরিস্ট ভ্যানে সিহানুকভিল। ভাড়া ওয়ান ওয়ে ১০-১৫ ডলার। সময় লাগে ৪-৫ ঘন্টা। রাস্তা খুবই ভাল। বাসে গেলে ৫-৭ ডলারের মধ্যে যাওয়া যাবে। বিমানে গেলে পেনম পেন থেকে সিহানুকভিল রিটার্ন টিকেট 120 ডলারের মতো পড়বে। সিহানুকভিল থেকে স্পিড ফেরিতে করে কোহ রং সামলেম আইল্যান্ড। ভাড়া রিটার্ন টিকেট ২০-২২ ডলার। সিহানুকভিল থেকে কোহ রং আইল্যান্ডও একই ভাড়া। কোহ রং সামলেম আইল্যান্ড এর সারাসান বে এলাকাটা বেশ জমজমাট। এখানে অনেকগুলো পাব, রেস্টুরেন্ট এমনকি একটি চাইনিজ ক্যাসিনোও রয়েছে। এই এলাকার রিসোর্টগুলোতে ২০-১০০ ডলারের মধ্যে রুম পাওয়া যায়। ডরমেটরিতে থাকলে ৫-১২ ডলার।

খাবার খরচ একটু বেশি। অন্তত প্রতি বেলার জন্য ৬-৮ ডলার খরচ করতে হবে। একটু আয়েশ করে খেতে গেলে ১০ ডলারের উপরে খরচ হবে।
×কম্বোডিয়াতে সেখানকার স্থানীয় মুদ্রার পাশাপাশি ডলারও চলে। সব লেনদেন ডলারেই করতে পারবেন।
× ঘোরাঘুরির সময়ে পরিবেশ যেন নষ্ট না করেন সেদিকে খেয়াল রাখবেন। যেখানে সেখানে ময়লা ফেলবেন না।

Source: Taimur Faruk Tusher‎ <Travelers of Bangladesh (ToB)