১. বিখ্যাত যশোর রোড

২.যশোর জেলার গদখালি,ঝিকরগাছা “দেশের সর্ববৃহৎ ফুল বাগান ও মার্কেট”

৩. “ঝাঁপা বাঁওড়ের উপর ভাসমান সেতু”

৪. মধুসূদন দত্তের বাড়ি

৫. কপোতাক্ষ নদ

৬. যশোর শহর

# বোনাস হিসেবে

১. ২১-২৮ জানুয়ারি বিশাল মধু মেলা
২. ফ্রেশ খেজুরের রশ

#যেভাবে_যাবেন :

১. ঢাকা থেকে রাতের বাসে বা ট্রেনে বেনাপোল। ভাড়া ৪৮০-১২০০ টাকা।

২. বেনাপোল থেকে যশোরের বাসে যশোর রোডের সৌন্দর্য দেখতে দেখতে কখন যে গদখালী এসে পরবেন তা টের ই পাবেন না। ভাড়া ২০ টাকা।

৩. বাস থেকে নেমেই দেখবেন ভ্যান আছে। ওরাই আপনাকে বলবে ফুল বাগান যাবেন কিনা। ভাড়া ১০ টাকা।

ফুল বাগান ঘোরাঘুরি শেষে ভ্যানে করে আবার গদখালি চলে আসুন।

৪. এবার বাসে করে পোলেরহাট নামুন। ভাড়া ২০টাকা।
পোলেরহাট থেকে বাসে করে রাজগঞ্জ নামবেন।বাসের কন্টাক্টরকে বলে রাখবেন আপনি ভাসমান সেতু দেখতে আসছেন তাহলে আপনাকে ঠিক গন্তব্যস্থানেই নামিয়ে দেবে। ভাড়া ৩৫টাকা।

অথবা, ইজি বাইকে ১০ টাকা দিয়ে ঝিকড়গাছা। সেখান থেকে ৫০ টাকা দিয়ে বাইকে রাজগঞ্জ ভাসমান সেতু।

সেতুতে উঠার আগেই ৫টাকা দিয়ে টিকেট নিতে হবে। টিকেট টা আপনার কাছেই রেখে দিন।এবার যতক্ষণ খুশি এখানে ঘুরুন। ঝাঁপা বাঁওড়ের পানি এতই স্বচ্ছ যে মাছের চলাচল দেখা যায়। চাইলে নৌকা দিয়ে বাওড় ও ঘুরতে পারেন।

৫. এরপর বাইকে করে মাইকেল মধুসূদনের বাড়ি ১০০ টাকা দিয়ে।

মাইকেলের বাড়ি, মেলা আর কপোতাক্ষ নদের পাড়ে সময় কাটিয়ে চলে আসুন রাজগঞ্জ।

৬.রাজগঞ্জ থেকে বাসে করে চাঁচড়া নামুন।ভাড়া ৩৫ টাকা। চাঁচড়া থেকে শহর/ জংশন ভাড়া ১০ টাকা।

৭. যশোর শহর ঘুরে রাতের বাসে বা ট্রেনে ঢাকা।

#খাওয়া_দাওয়া

১. জামতলার মিষ্টি
২. গদখালীর ছানা
৩. রাজগঞ্জ যাওয়ার পথে খেজুরের রশ

খরচ সর্বমোট: ২০+১০+৬০+০৫+২০০+৩৫+১০=৩৪০ টাকা

আপনার অবস্থান থেকে যশোর আপডাউন খরচ ও খাবারের খরচ ৩৪০ এর সাথে যোগ করে নিবেন।

(খাবারের প্যাকেট যত্রতত্র না ফেলা এবং স্থানীয় গাছগাছড়া ও পাখির ক্ষতি যাতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখার অনুরোধ রইলো। বিশেষ করে গ্রামের মানুষের তৈরি ব্রিজের যেন ক্ষতি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন।)

Source: Tanjil Tuhin‎>Travellers Of Bangladesh